৭ মাস পর রংপুরের শিক্ষিকা হত্যার হোতা গ্রেপ্তার

0
116
নিজস্ব প্রতিবেদক :: দীর্ঘ সাত মাস পর রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার বিরামপুর আদিবাসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বিলকিছ আরা বেগম (৫২) হত্যার মূল আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

গত বছরের ২০ ডিসেম্বর বিলকিছকে নিজ বাড়িতে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। গত ৩ জুলাই ক্লুলেস এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচনসহ মূল আসামি সিদ্দিকুর রহমান ওরফে সিদ্দিকুলকে (২০) গ্রেপ্তার করা হয়।
পিবিআই সূত্রে জানা গেছে, বিলকিস আরা বেগম বিরামপুর আদিবাসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ছিলেন। তিনি বাড়িতে তার স্বামীসহ থাকতেন। আসামি সিদ্দিকুর রহমান ওরফে সিদ্দিকুল ইতোপূর্বে দুইবার বিলকিছ আরার বাড়িতে চুরি করে। একবার হাতেনাতে ধরা পড়ায় চার মাস জেলহাজতে আটক ছিল। সেই ক্ষোভ থেকে ঘটনার তিন দিন আগে সেসহ পাঁচজন পুনরায় বিলকিছ আরার বাড়িতে চুরি করার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী  গত বছরের ২০ ডিসেম্বর তারা বিলকিছ আরার বাড়ির বাগানে ওৎ পেতে থেকে। তার স্বামী এশার নামাজের জন্য মসজিদে গেলে আসামি সিদ্দিকুলসহ আরো দুইজন ভিকটিমের বাড়ির ছাদ ঘেঁষা কাঠাল গাছ দিয়ে ছাদের ওপরে উঠে সিঁড়ি বেয়ে বাড়ির ভেতর প্রবেশ করে এবং অপর দুইজন বাথরুমের ছাদের ফাঁকা অংশ দিয়ে বাড়ির ভেতর প্রবেশ করে। তারা বিভিন্ন রুমে থাকা আসবাবপত্র তছনছ করে এবং ওয়ারড্রবের ড্রয়ার ভেঙে প্রায় তিন ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ প্রায় ২ লাখ টাকা ডাকাতি করে। প্রধান শিক্ষিকা ডাকাতদেরকে চিনতে পারলে তাকে শ্বাসরোধ করে ও ঘাড় মটকিয়ে হত্যা করে মেঝেতে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় প্রথমে একটি মামলা করা হয়েছিল।

পিবিআই রংপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শহিদুল্লাহ কাওছার জানান, ভিকটিম সরকারি প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা হওয়ায় মামলাটি খুবেই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সুষ্ঠু তদন্তের জন্য টিম গঠন করা হয়। মামলার মূলরহস্য উৎঘাটনসহ আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। মূল আসামি গ্রেপ্তার হওয়ায় ও রহস্য উন্মোচিত হওয়ায় এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে।
তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মো. আবু হাসান কবির জানান, মূলহোতা আসামি সিদ্দিকুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

Print Friendly, PDF & Email